নিজস্ব প্রতিবেদক

শনিবার , ২৩ ডিসেম্বর ২০১৭

একটুর জন্য পারলেননা নাসির

ডাবল সেঞ্চুরির পাশে আগেই নিজের নাম লিখিয়েছেন জাতীয় দলের এই মারকুটে ব্যাটসম্যান। চোখের সামনে প্রথমবারের মতো ট্রিপল সেঞ্চুরি করার দরজাটা যেন দুহাত বাড়িয়ে ডাকছিল।  কিন্তু দুর্ভাগ্য! পাঁচ রান বাকি থাকতে এক বেরসিক বল এসে মিলিয়ে দিল বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় ট্রিপল সেঞ্চুরিয়ান হওয়ার স্বপ্ন।

গতকাল ২৭০ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছিলেন নাসির। আজ সকালে ম্যাচের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে তিনিই ছিলেন। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে বাংলাদেশের কেবল দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ৩০০ রান করার সুযোগ ছিল তাঁর। ‘ছিল’ বলতে হচ্ছে, কারণ তীরে এসে তরি ডুবেছে নাসিরের। লিংকন দে সঞ্জয়ের বলে ফজলে রাব্বীর হাতে ক্যাচ দিয়ে ২৯৫ রানে আউট হয়েছেন তিনি। তিনি ফিরতেই ইনিংস ঘোষণা করেছে রংপুর। প্রথম ইনিংসে তাদের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৬১৪ রান। ২৭৯ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছে বরিশাল। এই প্রতিবেদন লেখার সময় তাদের সংগ্রহ বিনা উইকেটে ৩২ রান।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে এটিই নাসিরের সর্বোচ্চ ইনিংস। ৮০ ম্যাচে ৪ হাজার ৪০৯ রান করেছেন তিনি। এর আগে দ্বিশতক করেই আউট হয়েছিলেন; সর্বোচ্চ ইনিংস ছিল ২০১ রানের। ৫ সেঞ্চুরির সঙ্গে ২৭টি অর্ধশতক রয়েছে তাঁর। ব্যাটিং গড় ৩৫.৮৪। টেস্টে জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার দাবিটা আবারও জোরালো করলেন তিনি।

বাংলাদেশের হয়ে একমাত্র রকিবুল হাসানই এর আগে ট্রিপল সেঞ্চুরি দেখা পেয়েছেন। ২০০৭ সালের ২১ মার্চ করা তাঁর ৩১৬ রানই এখন পর্যন্ত ঘরোয়া লিগে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ ইনিংস। ত্রিশতকের দেশি ক্লাবে নিঃসঙ্গ এই ব্যাটসম্যানের সঙ্গী হতে পারতেন নাসির। ঘুরে-ফিরে তাই ৫ রানের আক্ষেপটা থাকছেই।


সর্বশেষ সংবাদ