নিজস্ব প্রতিবেদক

বুধবার , ২৭ জুন e ২০১৮

আগুনে পেপ-টকেই বিরতিতে সতীর্থদের জাগিয়েছিলেন মেসি! রহস্য ফাঁস নায়ক রোহোর


রূদ্ধশ্বাস ম্যাচ! রোমাঞ্চকর পরিসমাপ্তি। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে রক্তক্ষয়ী ম্যাচ জিতল আর্জেন্তিনা। সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন লিওনেল মেসি। শেষ মুহূর্তে রোহোর গোলেই এল শেষ ষোলো-র টিকিট। তবে লিও মেসির ভোকাল টনিকেই নাকি হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচে শেষ হাসি আর্জেন্তিনার। প্রথমার্ধে রাজপুত্রের স্বপ্নের গোলেই লিড নেয় নীল-সাদা জার্সির ফুটবলাররা। বিরতিতে এরপরেই দেখা যায় বিরল সেই দৃশ্য।

ডি মারিয়া, মার্কাডো, হিগুয়েন, মাসচেরানো, ওটামেন্ডিরা ঘিরে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। মধ্যমণি অবশ্যই লিও মেসি। কী বলেছিলেন তিনি। সেই কথাই এবার ফাঁস করলেন মার্কোস রোহো, যাঁর গোলেই আসে জয়। ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের রাইট ব্যাক বলেন, ‘‘মেসি আমাদের বলে ম্যাচটা জীবন-মৃত্যুর সঙ্গে জড়িয়ে। আমাদের প্রধান লক্ষ্যই হবে গোল করার। বক্সের আশেপাশে বল পেলেই গোলে শট নিতে হবে।’’

রোহো আরও জানান, ‘‘গোটা ম্যাচে অনেক খারাপ কিছু হতে পারত। আমরা গোল হজম করতে পারতাম। তবে লিও গোটা ম্যাচেই নাছোড় ছিল। বিরতিতেই ও স্পষ্ট করে দিয়েছিল যা পরিস্থিতিই আসুক না কেন, সবাইকে আক্রমণে আসতে হবে। আমাকেও উঠে খেলতে বলেছিল। এমনকি মাসচেরানোও অনেকটা উঠে খেলছিল।’’

মেসিকেই বিশ্বের সেরা নেতা তকমা দিয়ে মোরিনহোর ছাত্র বলছেন, ‘‘খুব ভালভাবে ম্যাচ রিড করছিল ও। ঝুঁকি নিতেও দ্বিধা করছিল না। ও সত্যিই নেতা। ও সেরা।’’

ক্রোয়েশিয়া ম্যাচের ৩-৫-২ ছক বদলে নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে আর্জেন্তিনাকে দেখা গেল ৪-৩-২ সিস্টেমে খেলতে। এই সিস্টেমেই বার্সেলোনাতে খেলে অভ্যস্ত ‘কিং লিও’! পাশাপাশি মড্রিচদের বিরুদ্ধে যে তারকাদের ঠাঁই হয়েছিল ডাগ আউটে সেই রোহো, বানেগা, ডি মারিয়া, পেরেজদেরও ফেরানো হয়েছিল প্রথম একাদশে। সবই নাকি মেসির নির্দেশে।

সাম্পাওলি নন, আর্জেন্তিনার কোচও এখন বাঁ পায়ের ঈশ্বরপ্রদত্ত মহাতারকা, গোটা বিশ্ব যাকে চেনে মেসি নামেই।


সর্বশেষ সংবাদ