নিজস্ব প্রতিবেদক

মঙ্গলবার , ১৭ মে ২০২২

ফরিদপুরের নগরকান্দায় দুই দলের সংঘর্ষ

এহসান রানা,  ফরিদপুর ঃ  ফরিদপুরের নগরকান্দায় গ্রাম্য আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে দুই পক্ষই থানায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দায়ের করেছে। ঘটনাটি সোমবার (১৬ মে) সন্ধায় উপজেলার কোদালিয়া শহিদনগর ইউনিয়নের দেলবাড়িয়া গ্রামে ঘটে।

জানা যায়, দেলবাড়িয়া গ্রামের মৃত সাত্তার শেখের ছেলে বাবলু শেখের (৩৯) সাথে একই গ্রামের মৃত কাদের মাতুব্বরের ছেলে তোফা মাতুব্বরের দীর্ঘ দিনের বিরোধ চলে আসছিলো।  এরই জের ধরে গতকাল সন্ধায় বাবলু শেখের সমর্থক দেলবাড়িয়া গ্রামের মৃত আলিমুদ্দিন শেখের ছেলে মন্টু শেখ (৫০) ও তোফা মাতুব্বরের সমর্থক কান্চু শেখের স্ত্রী আফরোজা বেগমের (৩৭) সাথে বাড়ির পাশে নির্মান নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

উত্তেজনার এক পর্যায় মন্টু শেখকে সমর্থন দিয়ে বাবলু শেখের লোকজন ও কান্চু শেখকে সমর্থন দিয়ে তোফা মাতুব্বরের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ঢাল, সড়কি, রামদা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এতে উভয় পক্ষে মহিলাসহ মোট ৬ জন আহত হয়। গুরুতর আহতদের মধ্যে তোফা মাতুব্বরের সমর্থক কান্চু শেখের স্ত্রী আফরোজা বেগম (৩৭) ও জাহিদ শেখের স্ত্রী তানজিলা বেগম (২৮) নগরকান্দা হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছে ।

এসময় সংঘর্ষকারীরা বাবলু শেখের পল্ট্রি ফার্ম থেকে প্রায় ৬ শো পিস মুরগি ও বেশ কয়েক বস্তা ফার্মের খাবার নিয়ে যায়। অপরদিকে তোফা মাতুব্বরের সমর্থকদের বেশ কয়েকটি বাড়ি ঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট চালায় সংঘর্ষকারীরা। এ ঘটনায় (১৭ মে) মঙ্গলবার বাবলু শেখ বাদি হয়ে ৬ জনকে অভিযুক্ত করে নগরকান্দা থানা একটি লিখিত অভিযোগ করে। অপরদিকে কান্চু শেখের স্ত্রী আফরোজা বেগম বাদি হয়ে ১২ জনকে অভিযুক্ত করে নগরকান্দা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। 

ফরিদপুরের নগরকান্দা থানার ওসি হাবিল হোসেন বলেন,  সংঘর্ষের ঘটনায় দুই পক্ষই অভিযোগ দিয়েছে। তদন্ত পুর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


সর্বশেষ সংবাদ